1. banijjobarta22@gmail.com : admin :

বন্ডের বিনিয়োগ ব্যাংকের বিনিয়োগ সীমার অন্তর্ভুক্ত হবে না: বিএসইসি চেয়ারম্যান

  • Last Update: Wednesday, July 27, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক

বন্ডের বিনিয়োগ ব্যাংকের বিনিয়োগ সীমার অন্তর্ভুক্ত হবে না বলে জানিয়েছেন শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংক এখন থেকে বন্ডের বিনিয়োগকে ব্যাংকের বিনিয়োগ সীমার মধ্যে অন্তর্ভুক্ত করবে না। ফলে শেয়ারবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগ এবং বন্ডে ব্যাংকের বিনিয়োগ সীমা নিয়ে সৃষ্ট জটিলতা খুব শিগগির সমাধান হতে যাচ্ছে।

মঙ্গলবার (২৬ জুলাই) রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে অনুষ্ঠিত ‘পদ্মা সেতু ও শেয়ারবাজারের সম্ভাবনা’ শীর্ষক সেমিনারে সম্মানিত অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। সেমিনারটি আয়োজন করে গ্রিন ডেল্টা ক্যাপিটাল লিমিটেড। এতে সহযোগিতা করে গ্রিন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স ও গ্রিন ডেল্টা সিকিউরিটিজ লিমিটেড।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. মশিউর রহমান।

সেমিনারে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম। বিশেষ অতিথি ছিলেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব শেখ মোহাম্মদ সেলিম উল্লাহ।

বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরের বরাত দিয়ে শিবলী রুবাইয়াত বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংক এখন থেকে বন্ডের বিনিয়োগকে ব্যাংকের বিনিয়োগ সীমার মধ্যে অন্তর্ভুক্ত করবে না। একইসঙ্গে বাজার দরের পরিবর্তে কস্ট প্রাইসে (ক্রয় মূল্য) বিনিয়োগ সীমা নির্ধারণের বিষয়টিতে অর্থ মন্ত্রণালয় নীতিগতভাবে একমত হয়েছে। এখন আইন সংশোধনের দিকগুলো খতিয়ে দেখা হচ্ছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার আমাকে এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীর অর্থনীতি বিষয়ক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান বলেন, শুধু পাবলিক সেক্টর নয়, প্রাইভেট সেক্টরের বিনিয়োগ ছাড়া দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জন সম্ভব নয়।

তিনি বলেন, আমি মনে করি, পদ্মা সেতুর বাস্তবায়নের পর যে পদক্ষেপটি এখন নিতে হবে, তা হলো আরও বিনিয়োগের জন্য অর্থ জোগাড় করা। এই বিনিয়োগ প্রাইভেট সেক্টর থেকে আসা উচিত। এখানে পাবলিক সেক্টরের ভূমিকা রয়েছে। তা হলো অবকাঠামোগত সহায়তা দেয়া। রেগুলেটরি ফ্রেমওয়ার্ক প্রদান করা। যতক্ষণ পর্যন্ত প্রাইভেট সেক্টর এই সুযোগগুলো গ্রহণ করে বিনিয়োগ না করবে ততক্ষণ পর্যন্ত দেশের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি আসবে না।

অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন গ্রীন ডেল্টা ক্যাপিটাল লিমিটেডের চেয়ারম্যান নাসির এ চৌধুরী।

ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) রফিকুল ইসলাম সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।

মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনের পরে অনুষ্ঠিত হয় প্যানেল আলোচনা। প্যানেল মডারেটর হিসেবে ছিলেন একাত্তর মিডিয়া লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও একাত্তর টেলিভিশনের প্রধান সম্পাদক মোজাম্মেল হক।

প্যানেল আলোচক হিসেবে অংশ নেন চিটাগং স্টক এক্সচেঞ্জের চেয়ারম্যান আসিফ ইব্রাহিম, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অফ পাবলিকলি লিস্টেড কোম্পানিজ-এর ভাইস প্রেসিডেন্ট সৈয়দ নাসিম মঞ্জুর, অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশ লিমিটেডের চেয়ারম্যান সেলিম আর এফ হোসেন এবং ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) তারিক আমিন ভূঁইয়া।

অনুষ্ঠানের শেষে ভোট অব থ্যাংকস প্রদান করেন গ্রীন ডেল্টা ইনস্যুরেন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ফারজানা চৌধুরী।

Banijjobarta© Copyright 2022-2023, All Rights Reserved
Site Customized By NewsTech.Com