1. banijjobarta22@gmail.com : admin :

কিস্তির ৫০ ভাগ দিলেই খেলাপি নয়

  • Last Update: Wednesday, June 21, 2023
বাংলাদেশ ব্যাংক

নিজস্ব প্রতিবেদক

ঋণখেলাপি থেকে মুক্তির জন্য আবারও বিশেষ সুবিধা দেওয়া হলো। কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলছে, মেয়াদি ঋণের বিপরীতে অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রদেয় কিস্তির ন্যূনতম ৫০ শতাংশ পরিশোধ করলেই ওই ঋণগুলো খেলাপি করা যাবে না। তবে তা চলতি জুনের শেষ কর্মদিবসের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে।

মঙ্গলবার (২০ জুন) বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ এ সংক্রান্ত একটি নির্দশনা দিয়েছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা মতে, চলতি বছরের এপ্রিল থেকে জুন পর্যন্ত তিন মাসের ঋণের কিস্তির অর্ধেক টাকা ডিসেম্বরের মধ্যে পরিশোধ করলেই আর ঋণগ্রহীতা খেলাপি হবেন না। নির্দেশনায় বলা হয়, চলতি বছরের ১ এপ্রিল থেকে বিদ্যমান অশ্রেণিকৃত মেয়াদি প্রকৃতির ঋণসমূহের (স্বল্পমেয়াদি কৃষি ও ক্ষুদ্র ঋণসহ) বিপরীতে এপ্রিল হতে জুন পর্যন্ত সময়ে প্রদেয় কিস্তির ন্যূনতম ৫০ শতাংশ জুনের শেষ কর্মদিবসের মধ্যে পরিশোধ করা হলে উক্ত ঋণসমূহ ত্রৈমাসিকে বিরূপ মানে শ্রেণিকরণ করা যাবে না। মেয়াদি ঋণের জুন পর্যন্ত প্রদেয় কিস্তির অবশিষ্টাংশ বিদ্যমান ঋণের পূর্বনির্ধারিত মেয়াদ শেষ হওয়ার পরবর্তী তিন মাসের মধ্যে সমকিস্তিতে অথবা এক কিস্তিতে প্রদেয় হবে।

নির্দেশনা মোতাবেক ঋণ পরিশোধে ব্যর্থ হলে ঋণসমূহ যথানিয়মে শ্রেণিকরণের আওতাভুক্ত হবে। ঋণের কিস্তি পরিশোধের ক্ষেত্রে সুবিধাপ্রাপ্ত ঋণের ওপর ১ এপ্রিল হতে ৩০ জুন পর্যন্ত সময়ের জন্য কোনোরূপ দণ্ডসুদ বা অতিরিক্ত ফি (যে নামেই অভিহিত করা হোক না কেন) আরোপ করা যাবে না। পুনঃতফসিলের মাধ্যমে অশ্রেণিকৃত হিসেবে প্রদর্শিত ঋণের জন্যও এ সার্কুলারের আওতায় প্রদত্ত সুবিধা প্রযোজ্য হবে।

ইসলামি শরিয়াহভিত্তিক ব্যাংকসমূহ তাদের প্রদত্ত বিনিয়োগের ক্ষেত্রে উপরিউক্ত নীতিমালা অনুসরণ করে বর্ণিত সুবিধা প্রদান করতে পারবে। সুবিধাপ্রাপ্ত ঋণের বিপরীতে যে পরিমাণ আরোপিত সুদ বা মুনাফা নগদে আদায় হবে তা আয় খাতে স্থানান্তর করা যাবে। ব্যাংক কোম্পানি আইন ১৯৯১-এর ৪৯(১)(চ) ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে এ নির্দেশনা জারি করা হয়েছে, যা অবিলম্বে কার্যকর হবে।

Banijjobarta© Copyright 2022-2024, All Rights Reserved
Site Customized By NewsTech.Com