1. banijjobarta22@gmail.com : admin :

ভুতুড়ে পদ সৃষ্টি করেছে বেস্ট লাইফ

  • Last Update: Saturday, May 27, 2023

রাসেল মাহমুদ

বীমা কোম্পানির জনবল কাঠামোতে সিনিয়র সহকারী ব্যবস্থাপনা পরিচালক-১, সহকারী ব্যবস্থাপনা পরিচালক-২ এবং সহকারী ব্যবস্থাপনা পরিচালক-৩ নামের কোনো পদ না থাকলেও চতুর্থ প্রজন্মের বীমা কোম্পানি বেস্ট লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড এই পদে জনবল নিয়োগ দিয়েছে। কোম্পানিটির বিভিন্ন ব্রাঞ্চে নিয়োগপ্রাপ্তরা দায়িত্বও পালন করছেন।

বীমা খাতের নিয়ন্ত্রক প্রতিষ্ঠান বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের (আইডিআরএ) করে দেওয়া জনবল কাঠামো অনুযায়ী, কোম্পানিগুলোতে ফাইন্যান্সিয়াল অ্যাসোসিয়েট (এফএ), ইউনিট ম্যানেজার (ইউএম), ব্রাঞ্চ ম্যানেজার (বিএম), সহকারী জেনারেল ম্যানেজার (এজিএম), ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম), জেনারেল ম্যানেজার (জিএম), সহকারী ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এএমডি), উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ডিএমডি), অতিরিক্ত ব্যবস্থপনা পরিচালক এবং মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) পদ রয়েছে।

কিন্তু বেস্ট লাইফ সিনিয়র সহকারী ব্যবস্থাপনা পরিচালক-১, সহকারী ব্যবস্থাপনা পরিচালক-২ এবং সহকারী ব্যবস্থাপনা পরিচালক-৩ নামের পদ সৃষ্টি করে বীমা আইন লঙ্ঘন করছে।

খাত সংশ্লিষ্টরা বলছেন, জনবল কাঠামোতে যে পদ নেই, সেই পদ সৃষ্টি করে লোক নিয়োগ দেওয়া প্রতারণার শামিল। এগুলো ভুতুড়ে পদ। এতে একদিকে যেমন জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হচ্ছে, অন্যদিকে বীমা খাত নিয়ে সাধারণের মধ্যে তৈরি হচ্ছে নেতিবাচক ধারনা। তাছাড়া কোম্পানির ব্যবস্থাপনা ব্যয়ও বাড়বে।

জানা গেছে, বেস্ট লাইফ বিভিন্ন সাংগঠনিক মিটিংয়ের ব্যানারে, প্রচারণায় এসব পদগুলো হরহামেশাই ব্যবহার করছে।

গত ১২ মে সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে বেস্ট লাইফের ‘শাহজাদপুর মডেল জোন’-এর শুভ উদ্বোধন ও উন্নয়ন সভার ব্যানারে আলোচ্য পদগুলোর উল্লেখ ছিলো। সভায় সিনিয়র সহকারী ব্যবস্থাপনা পরিচালক-১ পদে মো. সাখাওয়াত হোসেনের নাম উল্লেখ করা হয়। এছাড়া সহকারী ব্যবস্থাপনা পরিচালক-২ পদে মো. কাজী মোতাহের হোসেন পিন্টু এবং সহকারী ব্যবস্থাপনা পরিচালক-৩ হিসেবে মো. সাইফুল ইসলামের নাম ব্যানারে দেখা যায়।

ওই সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন কোম্পানির মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) এম এ মতিন। বীমা কোম্পানির জনবল কাঠামোতে ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) নামে কোনো পদ না থাকলেও ওই ব্যানারে এম এ মতিনকে সিইও এবং এমডি হিসেবে পরিচয় দেওয়া হয়। তিনি সিইও হিসেবে ভারপ্রাপ্ত দায়িত্ব পালন করলেও ব্যানারে তার উল্লেখ ছিল না। এমনকি কোম্পানির ওয়েবসাইটেও তার ভারপ্রাপ্ত দায়িত্বের কথা উল্লেখ নেই।

ব্যানারে ভুতুড়ে পদের উল্লেখ আছে

গত ২৫ মে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বাঞ্ছারামপুর উপজেলার সিকদার হাউজে বেস্ট লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের বাঞ্ছারামপুর মডেল শাখার শুভ উদ্বোধন ও ব্যবসা উন্নয়ন সভার ব্যানারেও ভুতুড়ে কয়েকটি পদের নাম উল্লেখ করা হয়। এরমধ্যে কুমিল্লা বিভাগীয় সিনিয়র সহকারী ব্যবস্থাপনা পরিচালক পদে মো. মজিবুর রহমান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া মডেল জোনের সহকারী ব্যবস্থাপনা পরিচালক পদে মো. মতিউর রহমান, বাঞ্ছারামপুর ও নবীনগর উপজেলা সহকারী ব্যবস্থাপনা পরিচালক পদে আলহাজ্ব কাজী মো. লিটন মিয়ার নাম উল্লেখ করা হয়। ওই অনুষ্ঠানে বাঞ্ছারামপুর মডেল শাখার জেনারেল ম্যানেজার ও ইনচার্জ মোল্লা মো. নাসির আহমেদ সভাপতিত্ব করেন। প্রধান অতিথি ছিলেন সিইও এম এ মতিন।

ভুতুড়ে এসব পদের বিষয়ে জানতে চাইলে বেস্ট লাইফ ইন্স্যুরেন্সের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) এম এ মতিন বাণিজ্য বার্তাকে বলেন, সাংগঠনিক কাঠামো অনুযায়ী পদ শুধু সহকারী ব্যবস্থাপনা পরিচালক। তবে বেতন কাঠামো কম-বেশি বোঝাতে ১, ২ বা ৩ উল্লেখ করেছি।

বেতন কাঠামোর দোহায় দিয়ে পদ হিসেবে এগুলো ব্যবহার করার সুযোগ আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এগুলো কিছু ব্রাঞ্চ অফিস করে। এটা তাদের ব্যাপার।

জানতে চাওয়া হয়, আপনার উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত একাধিক উন্নয়ন সভায় এসব পদ ব্যানারে উল্লেখ করা হয়েছে। কোনো পদক্ষেপ নিয়েছেন কিনা? তিনি এর কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি।

ব্যানারে ব্যবস্থাপনা পরিচালক পদ উল্লেখের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি একটা মিটিংয়ে আছি, এখন এতো কথা বলা যাবে না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেস্ট লাইফের একজন কর্মকর্তা বাণিজ্য বার্তাকে বলেন, নতুন সিইও যোগদানের পর এসব পদ সৃষ্টি করা হয়েছে। পদগুলো আগে ছিল না। এসব পদের কারণে বছর শেষে কোম্পানির খরচ হবে ১৬০ শতাংশ পর্যন্ত। পদগুলোতে মূলত সিইও’র আত্মীয়-স্বজনদের নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। একজন এএমডির অধীনে এএমডি-১, তার অধীনে এএমডি-২ এবং এএমডি-২-এর অধীনে রাখা হয়েছে এএমডি-৩।

কোম্পানির একটি সূত্র জানিয়েছে সিনিয়র সহকারী ব্যবস্থাপনা পরিচালক-১ পদে কর্মরত মো. সাখাওয়াত হোসেন সিইও এম এ মতিনের ভাই। তবে বাণিজ বার্তা স্বাধীনভাবে এ তথ্য যাচাই করতে পারেনি।

একাধিক বীমা কোম্পানির মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, এসব আজগুবি পদসৃষ্টি বীমা খাতের জন্য ‘অশনি সংকেত’। বীমা খাতের স্বচ্ছতা নিশ্চিতে এগুলো বন্ধ হওয়া জরুরি।

বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের (আইডিআরএ) পরিচালক ও মুখপাত্র (উপসচিব) মো. জাহাঙ্গীর আলম বাণিজ্য বার্তাকে বলেন, এএমডি-১, ২,৩ এমন কোনো পদ আইডিআরএর সাংগঠনিক কাঠামোতে নেই। কোনো কোম্পানি এমন পদ সৃষ্টি করলে তা অবশ্যই নিয়মবহির্ভূত। বীমা কোম্পানিতে এমডি পদ বলেও কিছু নেই।

ভারপ্রাপ্ত সিইও’র বিষয়ে তিনি বলেন, যাকে ভারপ্রাপ্ত দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তাকে অবশ্যই ভারপ্রাপ্ত বা চলতি দায়িত্ব উল্লেখ করতে হবে। কারণ যিনি চলতি দায়িত্বে আছেন তিনি পূর্ণাঙ্গ দায়িত্ব নাও পেতে পারেন।

Banijjobarta© Copyright 2022-2024, All Rights Reserved
Site Customized By NewsTech.Com