1. banijjobarta22@gmail.com : admin :

ডার্ক ওয়েবে ফাঁস গ্লোবাল ইসলামী ব্যাংকের তথ্য

  • Last Update: Friday, December 9, 2022

বাণিজ্য বার্তা ডেস্ক

শেয়ারবাজারে সদ্য তালিকাভুক্ত গ্লোবাল ইসলামী ব্যাংকের গুরুত্বপূর্ণ গোপনীয় তথ্য ডার্ক ওয়েবে ফাঁস হয়েছে। ডার্ক ওয়েব হলো ইন্টারনেট জগতে অবৈধ কর্মকাণ্ডের একটি মার্কেটপ্লেস, যেখানে ফাঁস হওয়া তথ্য কেনাবেচা হয়। মূলত বাংলাদেশি ব্যাংকটির তথ্য ফাঁস করেছে হ্যাকারদের ফোরাম হ্যাকিং ফোরামস।

আরও পড়ুন

বিনিয়োগকারীদের ‘গলার কাঁটা’ দুই ব্যাংকের শেয়ার

দেশের শীর্ষ গণমাধ্যম প্রথম আলো বিষয়টি নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, ডার্ক ওয়েবে ফাঁস হওযার তথ্য জানিয়ে টুইট করেছে হ্যাকিং নিয়ে তৎপর থাকা বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গ্রুপ। এসব গ্রুপ গ্লোবাল ইসলামী ব্যাংকের ২ দশমিক ৬ জিবি তথ্য ডার্ক ওয়েবে ফাঁস হয়েছে বলে জানায়। এর মধ্যে আছে ব্যাংকের লগইন ব্যাকআপ, ওয়েব ব্যাকআপ, ডকুমেন্টস, ছবি, ই–মেইল পাঠানোর তথ্য ইত্যাদি।

টুইট বার্তায় দেখা গেছে, ব্যাংকটির বিভিন্ন কর্মকর্তার ছবি, তাদের শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ, জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) প্রকাশ করা হয়েছে।

দেশের ব্যাংক খাতের তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগে কর্মরত কর্মকর্তারা বলছেন, নানা সময়ে হ্যাকাররা এসব তথ্য প্রকাশ করে বিক্রির চেষ্টা করে। তারা অনেক সময় বড় অঙ্কের অর্থ দাবি করে।

সংবাদ মাধ্যমটি গ্লোবাল ইসলামী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) হাবিব হাসনাতের সঙ্গে বিভিন্ন মাধ্যমে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পায়নি বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়। এমনকি ব্যাংকটির জনসংযোগ কর্মকর্তার মাধ্যমে বক্তব্য চাওয়া হলেও জবাব মেলেনি।

গ্লোবাল ইসলামী ব্যাংক চট্টগ্রামভিত্তিক একটি শিল্পগোষ্ঠীর মালিকানাধীন সাত ব্যাংকের একটি। প্রবাসীদের উদ্যোগে গঠিত এ ব্যাংককে ২০১৩ সালে অনুমোদন দেওয়া হয় এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক নামে। তখন ব্যাংকটির এমডি ছিলেন বহুল আলোচিত প্রশান্ত কুমার (পিকে) হালদার।

পিকে হালদারকে নিয়ে আলোচনা শুরু হলে ব্যাংকটি নাম পাল্টায় এবং প্রচলিত ধারা থেকে ইসলামি ধারার ব্যাংকে রূপান্তরিত হয়। ব্যাংকটির সব পরিচালক ওই শিল্পগোষ্ঠীর বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি।

ইসলামী ব্যাংকের ঋণের অনিয়ম আলোচনায় আসার পর গ্লোবাল ইসলামী ব্যাংকও তারল্যসংকটে পড়ে। তারা কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে টাকা ধার করে।

গত মাসেই ব্যাংকটি শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হয়।আইপিওতে ব্যাংকটি ১০ টাকা মূল্যের ৪২ কোটি ৫০ লাখ শেয়ার ইস্যু করে ৪২৫ কোটি তোলে।ব্যাংকটির প্রতিটি শেয়ারের দাম কমে এখন ৯ টাকায় আটকে আছে।

Banijjobarta© Copyright 2020-2022, All Rights Reserved
Site Customized By NewsTech.Com