1. banijjobarta22@gmail.com : admin :

এক বছরে সরকারের ব্যাংকঋণ বেড়েছে ৭৫ হাজার কোটি টাকা

  • Last Update: Sunday, October 30, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক

আর্থিক সংকটের কারণে ব্যাংক খাত থেকে সরকারে ঋণ নেওয়ার পরিমাণ বাড়ছে। চলতি বছরের ১৯ অক্টোবর পর্যন্ত ব্যাংক খাতে সরকারের ঋণ স্থিতি দাঁড়িয়েছে ২ লাখ ৮৩ হাজার ৬১৪ কোটি টাকা। গত বছরের একই সময়ে এর পরিমাণ ছিল ২ লাখ ৮ হাজার ৯৪৯ কোটি টাকা। ফলে গত এক বছরে ব্যাংকে সরকারের ঋণ বেড়েছে ৭৪ হাজার ৬৬৫ কোটি টাকা।

বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

অন্যদিকে, চলতি বছরের সেপ্টেম্বর শেষে বেসরকারি খাতে বকেয়া ঋণের স্থিতি দাঁড়িয়েছে ১৩ লাখ ৭৯ হাজার ৪১৩ কোটি টাকা। আগের বছরের একই সময়ে ঋণের স্থিতি ছিল ১২ লাখ ১০ হাজার ৭২২ কোটি টাকা। এক বছরেব ব্যবধানে বেসরকারি খাতে ঋণের পরিমাণ বেড়েছে ১ লাখ ৬৮ হাজার ৬৯১ কোটি টাকা।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্যানুযায়ী, বেসরকারি খাতের ঋণ প্রবৃদ্ধি বাংলাদেশ ব্যাংকের করা প্রাক্কলনের চেয়েও কম। চলতি ২০২২-২০২৩ অর্থবছরে ঘোষিত মুদ্রানীতিতে বেসরকারি খাতে ঋণের প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয় ১৪ দশমিক ১০ ভাগ। এর আগের অর্থবছর ২০২১-২০২২ এ প্রাক্কলন করেছিল ১৪ দশমিক ৮০ ভাগ।

জানা যায়, চলতি বছরের জানুয়ারিতে বেসরকারি খাতের ঋণের প্রবৃদ্ধি ছাড়িয়েছিল ১১ শতাংশ। ফেব্রুয়ারিতে ঋণ প্রবৃদ্ধি কমে দাঁড়ায় ১০ দশমিক ৭২ শতাংশে। এরপর মার্চে ১১ দশমিক ২৯ শতাংশ, এরপর ক্রমাগত বাড়তে থাকে ঋণ প্রবৃদ্ধি। জুলাইয়ে বেসরকারি ঋণের প্রবৃদ্ধি বেড়ে দাঁড়ায় ১৩ দশমিক ৯৫ শতাংশে।

বাংলাদেশ ব্যাংক ডলার সংকট সমাধানের জন্য বেশকিছু পদক্ষেপ নিয়েছে। এরপরেও রিজার্ভ সংকট কাটছে না। বর্তমানে দেশের রিজার্ভের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩৫ দশমিক ৮০ বিলিয়ন ডলার। একইসঙ্গে কমেছে ব্যাংকে আমানতের পরিমাণ। গত জুন শেষে ব্যাংকগুলোর মোট আমানতের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১৬ লাখ ২৪ হাজার ৪৭১ কোটি টাকা।

লোডশেডিং ও জ্বালানি সংকটের কারণে উৎপাদনের পরিমাণ আগের তুলনায় কমেছে। এতে করে কমেছে পণ্য আমদানির পরিমাণও।

সর্বশেষ সেপ্টেম্বরে এলসি খোলার পরিমাণ ৫৭০ কোটি ডলারে নেমেছে, যা এর আগের মাসেও ছিল ৬৩৩ কোটি ডলারে। গত জুনে এলসি খোলার পরিমাণ ছিল ৮৪৪ কোটি ডলার, যা জুলায়ে ৬৩৫ কোটি ডলারে নামে।

Banijjobarta© Copyright 2022-2024, All Rights Reserved
Site Customized By NewsTech.Com