1. banijjobarta22@gmail.com : admin :

ঈদকে কেন্দ্র করে দেশে আসছে বিপুল পরিমান রেমিট্যান্স

  • Last Update: Monday, April 25, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক

পবিত্র ঈদুল ফিতরকে কেন্দ্র করে পরিবারের বাড়তি খরচের চাহিদা মেটাতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে চলতি মাসে গড়ে প্রতিদিন প্রায় সাড়ে ৬ কোটি ডলারের বেশি রেমিট্যান্স পাঠিয়েছে প্রবাসীরা।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, চলতি এপ্রিল মাসের ২১ দিনে দেশে ১৪০ কোটি ৭০ লাখ ডলারের রেমিট্যান্স এসেছে। যা বাংলাদেশি মুদ্রায় (প্রতি ডলার ৮৬ টাকা ২০ পয়সা) এর পরিমাণ ১২ হাজার ১২৮ কোটি ৩৪ লাখ টাকার বেশি। সে হিসাবে প্রতিদিন রেমিট্যান্স আসছে ৫৭৭ কোটি ৫৪ লাখ টাকা।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, আগের বছর ২০২১ সালের এপ্রিলে ২০৬ কোটি ৭৬ লাখ ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছিলেন প্রবাসীরা। ওই মাসে দিনে গড় রেমিট্যান্সের পরিমাণ ছিল ৬ কোটি ৮৯ লাখ ডলার। আর চলতি এপ্রিলে প্রতিদিন গড়ে ৬ কোটি ৭০ লাখ ডলার করে রেমিট্যান্স আসছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. সিরাজুল ইসলাম জানান, প্রতিবছরই রমজানে প্রবাসীরা বিপুল পরিমাণ অর্থ দেশে পরিবারের জন্য পাঠিয়ে থাকেন। সে ধারাবাহিকতায় এবারও তারা বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে রেমিট্যান্স পাঠাচ্ছেন। এ ধারা অব্যাহত থাকলে চলতি এপ্রিল মাসে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্সের পরিমাণ ২০০ কোটি ডলার ছাড়িয়ে যাবে।

চলতি ২০২১-২০২২ অর্থবছরের ৯ মাস (জুলাই-মার্চ) নেতিবাচক প্রবৃদ্ধিতে রয়েছে রেমিট্যান্স। এই ৯ মাসে ১ হাজার ৫৩০ কোটি (১৫.৩০ বিলিয়ন) ডলার পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা।

গত ২০২০-২০২১ অর্থবছরের একই সময়ে তারা পাঠিয়েছিলেন এক হাজার ৮৫৯ কোটি ৮২ লাখ ডলার। এই হিসাবে জুলাই-মার্চ সময়ে রেমিট্যান্স কমেছে ১৮ শতাংশ।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য বলছে, ২০২০ সালের মার্চে করোনার শুরুর পর রেমিট্যান্স প্রবাহেও নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। ওই বছরের এপ্রিলে মাত্র ১০৯ কোটি ২৯ লাখ ডলার রেমিট্যান্স পাঠান প্রবাসীরা। এরপর থেকে মহামারির মধ্যেও ২০২০-২০২১ অর্থবছরের পুরোটা সময়ে রেমিট্যান্স প্রবাহে রেকর্ড করতে দেখা যায়।

গত অর্থবছরে অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে ২ হাজার ৪৭৮ কোটি ডলার রেমিট্যান্স পাঠান প্রবাসীরা। যা ছিল আগের অর্থবছরের চেয়ে ৩৬ দশমিক ১০ শতাংশ বেশি।

চলতি ২০২১-২০২২ অর্থবছরের শুরু থেকেই রেমিট্যান্স প্রবাহে ভাটা দেখা যায়। জুলাইতে প্রবাসীরা পাঠান ১৮৭ কোটি ১৫ লাখ ডলার। আগস্টে ১৮১ কোটি ডলার। সেপ্টেম্বরে ১৭২ কোটি ৬২ লাখ ও অক্টোবরে ১৬৪ কোটি ৭০ লাখ ডলার। নভেম্বরে কমে ১৫৫ কোটি ৩৭ লাখ ডলারে দাঁড়ায় রেমিট্যান্স।

প্রসঙ্গত, রেমিট্যান্স প্রবাহ বাড়াতে ২০১৯-২০২০ অর্থবছর থেকে ২ শতাংশ হারে নগদ প্রণোদনা দিয়ে আসছিল সরকার। গত জানুয়ারি থেকে তা বাড়িয়ে ২ দশমিক ৫ শতাংশ করা হয়েছে।

Banijjobarta© Copyright 2020-2022, All Rights Reserved
Site Customized By NewsTech.Com